বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের চতুর্থ ম্যাচেও ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছিল নাজমুল একাদশ। যদিও মুশফিকুর রহিম ও আফিফ হোসেন ধ্রুবর ব্যাটে ভর করে বিপর্যয় কাটানোর চেষ্টা করছে দলটি।  

মাহমুদউল্লাহ একাদশ রুবেল একাদশ

‘হোম অব ক্রিকেট’ খ্যাত মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নামে নাজমুল একাদশ। ওপেনার সৌম্য সরকার দুটি চার হাঁকিয়ে ভালো শুরুর ইঙ্গিত দিলেও ৪ বলে মাত্র ৮ রান করে রুবেল হোসেনের বলে বোল্ড হন।





সৌম্যর বিদায়ের পর দায়িত্ব বর্তায় অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্তর কাঁধে। কিন্তু ব্যর্থতার পরিচয় দিয়ে রুবেলের বলে বোল্ড হন তিনিও। তার আগে ১৪ বলে মাত্র ৩ রান করেন। ২৭ রানে দুই ব্যাটসম্যানকে খুইয়ে দল চাপে পড়ে গেলে উইকেটে সেট হওয়ার চেষ্টা করেন মুশফিকুর রহিম। অন্যপ্রান্তে দারুণ ব্যাট করছিলেন তরুণ ওপেনার পারভেজ হোসেন ইমন। কিন্তু ২১ বলে গড়া তার ২১ রানের সম্ভাবনাময় ইনিংস থামে আগের ম্যাচেও দারুণ বোলিং করা সুমন খানের শিকারে পরিণত হলে, দলীয় ৩১ রানে।

বড় ইনিংসের আভাস দিচ্ছেন মুশফিক-আফিফ

এরপর প্রতিরোধ গড়ে তোলেন মুশফিক ও আফিফ। মুশফিক একপ্রান্তে দেখেশুনে খেলছিলেন, অন্য প্রান্তে চড়াও হয়ে শুরু করেন আফিফ। এই প্রতিবেদন লেখার সময় ২১.৩ ওভার খেলা হয়েছে, তাতে নাজমুল একাদশের সংগ্রহ ৩ উইকেট হারিয়ে ৮৩ রান। মুশফিক ও আফিফের পার্টনারশিপ পৌঁছে গেছে ৫২ রানে। মুশফিক ৪৯ বলে ২১ ও আফিফ ৪২ বলে ৩০ রান করে অপরাজিত রয়েছেন। মুশফিক কোনো বাউন্ডারি না হাঁকালেও আফিফ হাঁকিয়েছেন তিনটি চার।






এই ম্যাচে দুই দলের একাদশেই এসেছে পরিবর্তন। আগের ম্যাচগুলোতে ভালো করতে না পারা নাঈম শেখকে বাইরে রেখে দল সাজিয়েছে মাহমুদউল্লাহ একাদশ। তার পরিবর্তে একাদশে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে  মাহমুদুল হাসান জয়কে। তাছাড়া একাদশে ফিরেছেন রাকিবুল হাসান। আমিনুল ইসলামের পরিবর্তে সুযোগ পেয়েছেন তিনি। এবাদত হোসেনকে সুপার-সাব হিসেবে আজও রেখেছে দলটি। অন্যদিকে, মোট তিনটি পরিবর্তন এসেছে নাজমুল একাদশে। সাইফ হাসান, মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ ও নাঈম হাসানের পরিবর্তে পারভেজ হোসেন ইমন, আবু জায়েদ রাহি ও নাসুম আহমেদ সুযোগ পেয়েছেন দলে।

টুর্নামেন্টে দুই দলের প্রথম দেখায় শেষ হাসি হেসেছিল নাজমুল হোসেন শান্তরা। তাই এ ম্যাচে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদদের সামনে সুযোগ থাকছে প্রতিশোধ নেওয়ার। টস জিতেই রিয়াদ প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, তাকে সাফল্যও এনে দিচ্ছেন বোলাররা।

মাহমুদউল্লাহ একাদশ : মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), লিটন কুমার দাস, ইমরুল কায়েস, মুমিনুল হক সৌরভ, মাহমুদুল হাসান জয়, নুরুল হাসান সোহান, সাব্বির রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ, রাকিবুল হাসান, সুমন খান ও রুবেল হোসেন, এবাদত হোসেন চৌধুরী (সুপার সাব)।

নাজমুল একাদশ : সৌম্য সরকার, পারভেজ হোসেন ইমন, নাজমুল হোসেন শান্ত (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), তৌহিদ হৃদয়, ইরফান শুক্কুর, আফিফ হোসেন ধ্রুব, তাসকিন আহমেদ, আল-আমিন হোসেন, আবু জায়েদ রাহী, নাসুম আহমেদ, রিশাদ হোসেন।

মাহমুদউল্লাহ একাদশ ও নাজমুল একাদশের খেলাটি সরাসরি দেখুন-

বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে BDCricTime সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

 

The post বড় ইনিংসের আভাস দিচ্ছেন মুশফিক-আফিফ appeared first on বিডিক্রিকটাইম.

Leave a Reply

%d bloggers like this: