রোম : ফের করোনা থাবা ফিরছে? পশ্চিমি দেশগুলির কার্যকলাপ দেখে তেমনই ইঙ্গিত করা যাচ্ছে। ব্রিটেন ও ফ্রান্সে নতুন করে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সেদেশের প্রশাসন। সেই পথেই এবার হাঁটতে চলেছে ইতালিও।

ইতালির প্রধানমন্ত্রী গিউসপপে কন্টে জানাচ্ছেন রবিবার অর্থাৎ ১৮ই অক্টোবর থেকে নতুন ভাবে নির্দেশিকা জারি করা হবে। করোনা বিধি মেনে তলতে হবে দেশের মানুষকে। কোনও রকম নিয়ম ভঙ্গের ঘটনায় থাকবে কড়া শাস্তির বিধান।

উল্লেখ্য ইতালিতে নতুন করে ১০,৯২৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন। শনিবার সারাদিনে এই সংখ্যক মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন করোনা ভাইরাসে।

ইতালির মিলান শহর সহ লোম্বার্ডি এলাকায় প্রকাশ্যে মদ্যপান ও বিক্রির ক্ষেত্রে লাগাম দেওয়া হয়েছে। বন্ধ করা হয়েছে বৈধ জুয়া খেলার আসরও। জানা গিয়েছে প্রতিটি বার ও রেস্তোরাকে রাত ১০টার মধ্যে দরজা বন্ধ করে দেওয়ার নির্দেশ আসতে চলেছে। স্কুলে যাওয়া বন্ধ হতে পারে নতুন করে। নিয়ন্ত্রিত হতে পারে বাইরে যাওয়ার বিষয়টি।

এদিকে, ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রন রাজধানী প্যারিস এবং মার্সেলিসহ আরও সাতটি শহরে রাত্রিবেলার কারফিউ ঘোষণা করেছেন। একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রন এমন ঘোষণা করেন। ফ্রান্সে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধের জন্য তিনি এইসব গুরুত্বপূর্ণ শহরে কারফিউ জারির ঘোষণা করেন। এছাড়া, ফ্রান্সের রাষ্ট্রীয় স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হচ্ছে বলে তিনি জানান।

ম্যাক্রন জানিয়েছেন, রাজধানী প্যারিসে এবং মার্সেলিসহ নয়টি শহরের লোকজনকে রাত ৯টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত কঠোরভাবে কারফিউ মেনে চলতে হবে। ১৭ অক্টোবর থেকে কারফিউ জারি হবে এবং কমপক্ষে চার সপ্তাহ তা বহাল থাকবে। এই সময়ে কারফিউ বলবতের অর্থ হচ্ছে লোকজন কোনো রেস্টুরেন্ট ও প্রাইভেট হোমে যেতে পারবেন না।

রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে ম্যাক্রোন জানিয়েছেন, সকলকে করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণের জন্য কাজ করতে হবে এবং করোনাভাইরাসের বিস্তার দমন করতেই হবে। যেসব ব্যক্তি এই কারফিউ অমান্য করবেন তাদেরকে ১৩৫ ইউরো জরিমানা করা হবে। ইমানুয়েল ম্যাক্রন বলেন, খুব খারাপ অবস্থার মধ্যে রয়েছে ফ্রান্স; এখন এই অবস্থায় কারোরই করোনাভাইরাসকে উপেক্ষা করা উচিত হবে না।

এদিকে, ফের একবার দেশবাসীকে সতর্ক করলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী। উৎসবের মরসুম, তারপর শীতকাল। করোনার বড় ধাক্কার জন্য তৈরি থাকুন। সম্প্রতি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের অধীনে থাকা স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানগুলির কর্ণধারদের সঙ্গে বৈঠক করেন হর্ষ বর্ধন। সেখানেই তিনি আবার এই আশঙ্কার কথা প্রকাশ করেন।

ভারতে ভয়াবহ আকার নিতে পারে করোনা। বেশ কয়েকটি রাজ্যে লাগামছাড়া সংক্রমণের আশঙ্কা করা হচ্ছে বলে সতর্ক করেন তিনি।

The post ফ্রান্স-ব্রিটেনের পর ইতালি, জারি কড়া করোনা নিষেধাজ্ঞা

appeared first on Kolkata24x7 | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading online Newspaper.

Leave a Reply

%d bloggers like this: