<

p style=”text-align: justify;”>ম্যাচের তখন ৮৬ মিনিটের খেলা চলছে, তখনও স্কোরলাইন ১-১। অনেকে হয়ত ধরেই নিয়েছিল ম্যাচ শেষ হবে অমীমাংসিতই। তবে না শেষ চার মিনিট এবং যোগ করা অতিরিক্ত সময়ে তিন গোলে ৪-১ ব্যবধানে নিউক্যাসেলের বিপক্ষে জয় তুলে নেয় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

শনিবার নিউক্যাসেলের মাঠে খেলতে নেমে ম্যাচের চারটি গোলই আসে রেড ডেভিলদের কাছ থেকে। এর মধ্যে ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটে রেড ডেভিল ডিফেন্ডার লুক শ’র আত্মঘাতি গোলে এগিয়ে যায় নিউক্যাসেল। ম্যাচের ২০ মিনিটেই অবশ্য সমতায় ফিরেছিল রেড ডেভিলরা তবে ভিএআর দেখে রেফারি সিদ্ধান্ত জানান হুয়ান মাতা অফসাইডে ছিলেন আর তাই গোলটি বাতিল করা হয়।

অফসাইডে পড়ে গোল বাতিল হলেও সমতায় ফিরতে অপেক্ষা করতে হয়নি ওলে গানার সোলশায়ারের দলকে। ম্যাচের ২৩ মিনিটে সেই মাতার অ্যাসিস্ট থেকে হেডে গোল করেন রেড ডেভিল অধিনায়ক হ্যারি মাগুয়ের। ম্যাচের ৩৬ মিনিটে মার্কোস রাশফোর্ডের শট গোললাইন থেকে ফিরিয়ে দেন নিউক্যাসেল ডিফেন্ডার জামাল লাসেলস। এরপর প্রথমার্ধে আরও কিছু সুযোগ পায় রেড ডেভিলরা তবে গোলের দেখা না পেলে ১-১ সমতায় থেকেই বিরতিতে যায় দুদুল।

এরপর বিরতি থেকে ফিরে দুই দলের দুই গোলরক্ষকের দৃঢ়তায় গোল হজম থেকে বেঁচে যায় দুই দলই। ৫২তম মিনিটে ক্যালাম উইলসনের শট ঝাঁপিয়ে পড়ে ফেরান ইউনাইটেড গোলরক্ষক। এরপর ফার্নান্দেজ স্পট কিক ফিরিয়ে নিউক্যাসলের ত্রাতা গোলরক্ষক কার্ল ডারলো। ডি-বক্সে রাশফোর্ড ফাউলের শিকার হলে বেশ কিছুক্ষণ ধরে ভিএআর দেখে পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়েছিলেন রেফারি।

তবে ম্যাচে প্রথমবারের মতো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড লিড নেয় ৮৬তম মিনিটে। রাশফোর্ডের ছোট পাস ধরে ডান পায়ের দারুণ শটে দূরের পোস্ট দিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন ব্রুনো ফার্নান্দেজ। খেলার তখন একদম অন্তিম মুহূর্ত চলছে,  ৯০ মিনিটের সময় রাশফোর্ডের কাছ থেকে পাওয়া বলে শট নেন অ্যারন ওয়ান-বিসাকা আর তাতেই লক্ষ্যভেদ। অতিরিক্ত সময়ের ৬ষ্ঠ মিনিটে ব্রুনো ফার্নান্দেজের অ্যাসিস্ট থেকে গোল করে দলকে বড় জয় এনে দেন মার্কোস রাশফোর্ড। শেষ পর্যন্ত ৪-১ ব্যবধানের জয় তুলে নেয় রেড ডেভিলরা।

The post পিছিয়ে পড়েও শেষ পর্যন্ত বড় জয় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের appeared first on Sarabangla | Breaking News | Sports | Entertainment.

Leave a Reply

%d bloggers like this: