বেজিং:  এইচআইভি এবং এইডস সংক্রমণ ক্রমশ বাড়ছে লালচিনে। এমনটাই ভয়াবহ রিপোর্ট উঠে এসেছে। এভাবে এইডস এবং এইচআইভি সংক্রমণ হওয়া রোগীর সংখ্যা এভাবে বাড়তে থাকায় মাথায় বাজ ভেঙে পড়েছে চিনা স্বাস্থ্য দফতরের।

সম্প্রতি চিনা স্বাস্থ্য আধিকারিকরা জানিয়েছেন, সে দেশে এইচআইচভি ও এইডস আক্রান্তের সংখ্যা ১৪ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে। এর মধ্যে ২০১৮ সালের দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকেই নয়া ৪০ হাজার আক্রান্তকে চিহ্নিত করতে পেরেছে চিন প্রশাসন।

বর্তমান পরিস্থিতিতে লালচিনে এইচআইভি ও এইডস আক্রান্তের সংখ্যা ৮ লক্ষ ২০ হাজার। যা কিনা যথেষ্ট চিন্তার কারণ হিসাবেই মনে করা হচ্ছে।

এত দিন পর্যন্ত জানা ছিল যে সংক্রমিত রক্ত দেহে প্রবেশই চিনে এইচআইভি সংক্রমণের প্রধান কারণ। কিন্তু সম্প্রতি রিপোর্টে উঠে এসেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য।

জানা গিয়েছে, এই প্রক্রিয়ায় সংক্রমণ হওয়া প্রায় বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু তার পরেও কী ভাবে এই বৃদ্ধি?

স্বাস্থ্য আধিকারিকদের দাবি, চিনা সমকামী সম্প্রদায়ের মধ্যে অসুরক্ষিত যৌন সম্পর্কের জেরেই ছড়িয়ে পড়ছে এইচআইভি ও এইডস।

চিনে সমকামিতা আইনত অপরাধ না হলেও অনেকেই এখনও গ্রহণ করতে পারেন না সমকামীদের। সামাজিক চাপে বহু পুরুষই নারীকে বিয়ে করেন। এ সব ক্ষেত্রে অসুরক্ষিত যৌন সম্পর্কের জেরেই সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে বলে দাবি স্বাস্থ্যঅধিকর্তাদের।

The post চিনা সমকামীদের অসুরক্ষিত যৌনতায় ছড়াচ্ছে ভয়ঙ্কর এই রোগ! appeared first on Kolkata24x7 | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading online Newspaper.

Leave a Reply

%d bloggers like this: