ধ”র্ষ’ণের ঘটনায় জ’ড়ি’তদের স’র্বোচ্চ শা’স্তির দাবিতে রাজ’ধা’নীসহ সারা দেশে বি’ক্ষো’ভ করছে বি’ভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। তাদের দাবির সঙ্গে একা’ত্ম’তা পো’ষণ করে সামা’জিক যোগাযো’গ মাধ্যমে পো’স্ট করেছেন বিভিন্ন’ অঙ্গ’নের তা’রকারা।

তা’রকাদের মধ্যে রয়ে’ছেন ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মুর্তজা, সা’কিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুশফি’কুর রহিম, অ’ভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। শ’নিবার রাতে ফেস’বুকে এক ভিডিও পোস্ট করে সে তালি’কায় যু’ক্ত হন আলো’চিত নায়ক অনন্ত জলিল।

ভিডিওতে ধ”র্ষ’ণের প্রতিবাদ জানালেও এর জন্য না’রী’দের পোশা’ক’কেই দা’য়ী করেছেন ব্যব’সায়ী না’য়ক। তার এ পোস্ট নিয়ে ব্যা’পক সমা’লোচনা করে’ছেন তারকা’সহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। এমন বা’স্তব’তায় আগের ভিডিও থেকে সমা’লো’চিত অংশ ফেলে আবার পো’স্ট করেন।

এর ক্যা’পশনে তিনি বলেন, ‘গতকাল’কের ভিডিওতে আমি মূলত মে’য়েদের’কে শা’নতা বজায় রা’খার জন্য বলতে চেয়েছি। অনেকেই বিষয়টি”’কে পজি’টিভভা’বে নিয়েছেন। আবার অনেকেই নে’গেটি’ভভাবে নিয়ে’ছেন।’ ‘আমি কো’নো বিত’র্কে জ’ড়াতে চাই না। তাই আমি উক্ত বিষয়টি কারেকশন করে দিলাম। কেউ ভু’ল বুঝে থাক’লে ক্ষ’মা’র দৃষ্টিতে দেখবেন।’

এর আ’গের ভি’ডিওতে ধ”র্ষ’ণকা’রীদের উদ্দেশে তিনি বলে’ছিলেন, ‘তোমাদের সামনে তো’মা’দের স্ত্রী’-ক’ন্যাকে যদি কে’উ র‌্যাপ (ধ”র্ষ’ণ) করে, তাহলে তোমা’র কেমন লাগবে? তুমি একটা অমা’নুষ; তোমা’র ভালোই লা’গবে বোধ হয়। না হলে অন্যের মা, বোন’কে র‌্যাপ করতে পারতে না।’

‘কবে তোরা নিজে’কে মানুষ মনে করবি? তোর জন্য তোর বাবা-মা ক’লঙ্কিত।’ ভিডিওতে মে’য়ে’দের উদ্দে’শে অন’ন্ত বলেন, তিনি ‌‘এক’জন ভাই হি’সেবে’ কিছু কথা বলতে চান। এরপর তিনি পো’শা’কের বি’ষয়’টি টেনে আনেন।

‌‘খোঁজ দ্য সার্চ’ দিয়ে ক্যারিয়া”র শুরু করা অ’ভিনেতা বলেন, ‘সিনেমা, টেলিভিশন, সোশ্যাল মিডিয়াতে অন্য দেশের মে’য়ে’দের অ’শ্লী’ল, অ”শা’লীন ড্রে’সআপ দেখে নিজেরা একই ড্রেস’আপ করে ঘো’রা’ফেরা করো। তোমাদের ড্রেসের দিকে তা’কিয়ে তো’মাদের ফিগার দে’খে বখাটে ছে’লেরা বিভি’ন্নভাবে মন্তব্য করে এবং র‌্যাপ করার চি’ন্তা তাদের মা’থা’য় আসে।’

‘তোম’রা কি নি’জেদে’রকে ম’ডার্ন মনে করো? এটা কি মডার্ন ড্রে’স নাকি অ’শা’লীন ড্রেস?’

‘মডার্ন ড্রেসের’ সংজ্ঞা দিতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘মহান আ’ল্লাহ তা’য়ালা তোমা’কে যে সুন্দর চেহা’রাটা দিয়ে’ছেন, সে চেহা’রাটা দেখা যাবে। কিন্তু যে শ’রী’রটা আছে, সেটা ঢেকে রাখতে হবে। পা’শের এক ভদ্র মে’য়েকে জি’জ্ঞে’স করে দেখো যে, তোমা’কে কত বাজে লাগে দেখতে।’

‘ছে’লেদের মতো’ একটা টি-শার্ট পরে রা’স্তায় বের হয়ে যাও। মডার্ন মে’য়ে তুমি। তারপর ইজ্জ’ত শেষ করে যখন বাসায় যাও হয় আ”ত্ম’হ’ত্যা করো, না হয় মানু’ষের সামনে মুখ দেখা’তে পারো না। তখন কো’থায় থাকে এই ম’ডার্নগি’রি?’ অন’ন্ত মনে করেন, ‘শা’লীন ড্রেস’ পরলে ছে’লেরা মে’য়ে’দের দিকে শ্র’দ্ধার চোখে তাকাবে, সম্মা’ন দেবে।

অনন্ত জলিল

ভিডিওর একপর্যায়ে ধ”র্ষ’ণকা’রীদের ‘প্রিয় ভাই’ সম্বোধন করেন এ অ’ভিনেতা। তিনি বলেন, ‘আমা’র প্রিয় ভা’ইয়েরা, তোমাদের আগে আমি তুই করে ব’লেছি এ জন্য আমি দুঃখিত। কিন্তু তো’ম’রা একটু চি’ন্তা করে দেখ তোম’রা যা করছ, তা ঠিক কি না।’

ভিডিওর শেষ প’র্যা’য়ে প্রধা’নম’ন্ত্রীর কাছে আবেদন করে তিনি বলেন, ‌‘আপনি আমাদের অ’ভি’ভাবক। আপনা’কেই এই ধ”র্ষক’দের মৃ’ত্যু’দ’ণ্ডের আইন ও বা’স্ত’বায়ন করতে হবে।’ শনি’বার রাতে অনন্তের অ’ফিশি’য়াল ফেস’বুক পেজে পো’স্ট হওয়া ভিডিওটি মু’ছে দেয়া হয় রবিবার বিকেলে। আগের ভিডিওটি সাত লা’খের বেশি বার দেখা হয়েছে। পাঁচ হা’জা’রের বেশি মানুষ শেয়ার করেছে।

কমে’ন্টে ছিল মিশ্র প্র’তিক্রি’য়া। কেউ কেউ তাকে ধ’ন্যবাদও জানি’য়েছেন। তবে অ’ভিনেত্রী মেহের আফ’রোজ শাওন, গায়িকা এলিটা করিমসহ অনেকে ব্যাপ’ক সমা’লো’চনা করেন ও বয়ক’টের ডাক দের। সামাজিক যোগা’যোগ মাধ্যমেও তুমুল আ’লোচ’না-সমা’লোচনা হয়েছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: